ঢাকা সন্ধ্যা ৭:৫৫, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১
শিরোনাম:
মাধবপুরের প্রচার বিমুখ শতবর্ষী মরমি শিল্পী ফকির আসকর আলী লাখাইয়ের সিরাজুম মনিরা সিনহা, বৃত্তি পেয়েছে। মাধবপুরে কৃষি, প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য উদ্যোক্তারা পেল কৃষি যন্ত্রপাতি বাপা হবিগঞ্জের উদ্যোগে শায়েস্তাগন্জে পরিবেশ ও বজ্রপাত রক্ষায় তালের চারা রোপন। লাখাইয়ে বন্য প্রাণী রক্ষায় বন বিভাগের অভিযান। বিজয় নগরে ৪টি গ্রামে শারদীয় দুর্গাপূজা পালিত লাখাইয়ে ফিলিস্তিনীদের উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত। লাখাইয়ে নানা আয়োজনে শেখ রাসেল দিবস উদযাপিত। লাখাইয়ে শায়েস্তাগঞ্জের বানীর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। হৃদয়ের আয়নায় আতাউর রহমান ইমরান মাধবপুরে দুর্গাপূজায় প্রধানমন্ত্রীর অনুদান বিতরণ করলেন : প্রতিমন্ত্রী লাখাইয়ে সকল পূজা কমিটির সাথে নিরাপত্তা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। লাখাইয়ে মাদকদ্রব্যসহ ২ জন আটক। লাখাইয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৪ প্রতিষ্ঠানকে অর্থদন্ড। মাধবপুর মডেল প্রেসক্লাব পরিদর্শনে গেলেন বিমান প্রতিমন্ত্রী মাধবপুরে বজ্রপাতে একই পরিবারের ২ জনের মৃত্যু প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে গাজীপুর শিল্পকলার বর্ণাঢ্য আয়োজন মাধবপুরে সামাজিক সম্প্রীতি রক্ষায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত লাখাইয়ে বাপার উদ্যোগে তালের চারা রোপন অভিযান। মাধবপুরে রাখাল বাবুল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন মাধবপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসির মতবিনিময় মাধবপুরে লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্বুদ্ধকরণ বিষযক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মাধবপুরে মাদকবিরোধী অভিযান মাধবপুরে মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক দেবী চন্দ মাধবপুরে নানা আয়োজনে ১৫ ই আগস্ট পালিত নিখোঁজের ১৫ পরেও মেলেনি কুরআনের হাফেজ মেহেদী কে। জয়পুরহাটে কালাইয়ে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর ৯৩ তম জন্মবার্ষিকী পালিত মাধবপুরে এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা মাধবপুরে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালের পুরস্কার বিতরণ সরকার স্মার্ট বাংলাদেশ বি-নির্মাণে কাজ করছে : প্রতিমন্ত্রী জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদন্ডাদেশ আদেশ দিয়েছেন আদালত

জয়পুরহাট ও পাঁচবিবি উপজেলা কচুর লতি ও কচু রাজধানী সহ যাচ্ছে সারাদেশ

চ্যানেল ১০০ ডেস্ক। আপডেটঃ শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৯:২৪ পিএম 90 বার পড়া হয়েছে

মোঃ মোকাররম হোসাইন জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি ঃ

কচুর এই লতি অযত্ন অবহেলায় এমনিতেই বেড়ে উঠে। আর কচুসহ এর লতি চাষ বর্তমানে বেশ লাভজনক। বিগত কয়েক বছর ধরে কচু চাষের আওতা বেড়েছে। জয়পুরহাট অঞ্চলে উৎপাদিত কচুর লতি এখন রাজধানীসহ বড় বড় শহরে যাচ্ছে। এর বাইরে সীমিত পরিমাণে বিদেশেও রফতানি হচ্ছে।

কৃষি গবেষণার সাথে সংশ্লিষ্ট বক্তব্য কচুর লতি চাষাবাদ চলে আসছে এভাবে। দেশে বিভিন্ন নামে কচু পাওয়া যায়। এগুলো হলো মুখি বা বই কচু, কাঠকচু বা লতি কচু, মান কচু, ওল কচু। এর মধ্যে লতি কচু বা লতিরাজ কচুর চাষ করে জয়পুরহাট অঞ্চলে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

 

কৃষি বিভাগের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী জয়পুরহাট অঞ্চলের পাঁচবিবি এলাকায় গত এক দশক ধরে লতিকচুর চাষ হচ্ছে। অর্থনৈতিক ভাবে কৃষকেরা লাভবান হয়। এ বিষয়ে বগুড়ার কন্দ ফসল গবেষণা কেন্দ্রের ইনচার্জ এবং সিনিয়র কীটতত্ত¡বিদ জুলফিকার হায়দার প্রধান বলেছেন, কচুর মতোই বা তার চেয়েও বেশি পুষ্টিমান রয়েছে কচুর লতিতে। প্রচুর ভিটামিন, মিনারেল, আয়রণ, ক্যালসিয়াম ও আঁশে পরিপূর্ণ লতিরাজ কচু।

 

তিনি জানান, কচুর লতির চাষ তাই দিন দিন বাড়ছে। প্রচুর ফলন পাওয়ায় কৃষকেরা খুশি হয়। এর বাজার মূল্যও কম নয়। লতিরাজ কচুর ফসল প্রতি সপ্তাহে দু’বার করে মাসে আটবার তুলতে হয়। প্রতি সপ্তাহে দু’বার করে কচু গাছ থেকে লতি কাটতেই হবে। যদি কাটা না হয় তাহলে এটি লম্বা হয়ে খাওয়ার অযোগ্য হয়ে যাবে।

 

অর্থাৎ রান্না করা হলে সিদ্ধ হওয়ার পরিবর্তে শক্ত থেকে যাবে। একটি কচু গাছ থেকে মাসে আটবার ফলন পাওয়া যায়। সে হিসাবে একটি কচু গাছ থেকে বছরে ৯৬ বার লতির ফলন লাভজনক যে তাতে সন্দেহ নেই। তাছাড়া কচু চাষ এবং ফলন লতি পেতে অন্যান্য সবজির চেয়ে তুলনামূলকভাবে খরচও কম।

 

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে এর বিভিন্ন স্থানে চাহিদা রয়েছে। লতিরাজ ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ভোজনরসিক বাঙালিদের মধ্যে যারা মধ্যপ্রাচ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইংল্যান্ডে বসবাস করেন তাদের জন্য সীমিত আকারে রফতানি হচ্ছে। বিশেষ করে বছরের চাকা ঘুরছে এবং লতিরাজের রফতানিও বাড়ছে।

মন্তব্য

আপলোডকারীর তথ্য

Channel 100 Admin

আপলোডকারীর সব সংবাদ